Facebook users be careful

0
170

ফেসবুকের বিজ্ঞাপন প্রক্রিয়া সম্পর্কে ব্যবহারকারীরা অজ্ঞাত:

Facebook users be careful

ফেসবুক ব্যহারকারীদের ব্যক্তিগত পছন্দ-অপছন্দের তথ্য সংগ্রহ করে রাখে ফেসবুক। পরে এসব তথ্য বিজ্ঞাপনদাতা প্রতিষ্ঠানের কাছে বিক্রি করে দেওয়া হয়। তবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমটির বেশির ভাগ ব্যবহারকারীই তা জানেন না। মার্কিন জনমত জরিপ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান পিউয়ের নতুন এক গবেষণা প্রতিবেদনে এমন তথ্য উঠে এসেছে।  প্রতিবেদন থেকে আরও জানা যায়, জরিপে অংশ  নেওয়া প্রায় তিন-চতুর্থাংশ ব্যক্তিই জানতেন না যে, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমটি তাঁদের না জানিয়ে তথ্য বিক্রি করছে। পরে তাঁদের ফেসবুক একাউন্টে গিয়ে নিজেদের অ্যাড প্রিফারেন্স দেখতে বললে ব্যাপারটি তাঁদের নজর আসে। ১৮ বছরের ৯৬৩ জন মার্কিন নাগরিকের

আরো জানতে: বিশ্বের বাজারে প্রথম ভাঁজ করা অদ্ভুদ স্মার্টফোন

ওপর  এই জরিপ চালায় পিউ। এর আগে গত ডিসেম্বরে এক অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে গাহকদের ব্যক্তিগত তথ্য  বেহাতের আরেকটি ঘটনায় অভিযোগ করা হয় ফেসবুকের বিরুদ্ধে। আমাজান, মাইক্রোসফট ও সনির মতো প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোকে ব্যবহারকারীদের তথ্যে প্রবেশাধিকার দিয়েছিল  ফেসবুক। গ্রাহকদের ই-মেইল ঠিকানা ফাঁস , এমনকি নেটফ্লিক্স ও স্পটিফাইকে ব্যক্তিগত বার্তা পড়ার সুযোগ করে দিয়েছিল প্রতিষ্ঠানটি। পিউ-এর ইন্টারনেট ও প্রযুক্তি বিষয়ক গবেষণা পরিচালক লি রেইনি জানান, বেশির ভাগ মার্কিন নাগরিক প্রাইভেসি পলিসিতে সম্মতি জানালেও অনেকেই জানেন না তাঁদের অজান্তে কীভাবে তা লঙ্ঘিত হচ্ছে। জরিপে অংশ নেওয়া ৭৪ শতাংশ

ব্যবহারকারী জানেন না তাঁদের ব্যাক্তিগত তথ্য চুরি হচ্ছে। জরিপে অংশ নেওয়া অর্ধেকেই ব্যাপারটিকে রাজনৈতিক হিসেবে আখ্যা দেন। ফেসবুকের তথ্য পাচারের বিষয়টি সামনে আসে ২০১৬ সালে। সেবার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনকে প্রভাবিত করতে কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা নামের একটি রাজনৈতিক পরামর্শক প্রতিষ্ঠান ফেসবুক ব্যবহারকারীদের ব্যক্তিগত তথ্য সংগ্রহ করেছিল।

সুত্র : ফরচুন।

আরো জানতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন।

 

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here