ফেসবুককে পিছনে ফেলে জনপ্রিয়তার শীর্ষে হোয়াটসঅ্যাপ

0
333
ফেসবুককে পিছনে ফেলে জনপ্রিয়তার শীর্ষে হোয়াটসঅ্যাপ

জনপ্রিয়তার শীর্ষে হোয়াটসঅ্যাপ

ফেসবুককে পিছনে ফেলে জনপ্রিয়তার শীর্ষে হোয়াটসঅ্যাপ২০১৮ সালে ফেসবুক, ইউটিউবকে পেছনে ফেলে সবচেয়ে জনপ্রিয় অ্যাপের খেতাব জিতেছে নিয়েছে হোয়াটসঅ্যাপ। মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন বিশ্নেষক প্রতিষ্ঠান অ্যাপ অ্যানির 'দ্য স্টেট অব দ্য মোবাইল ২০১৯' শীর্ষক প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে।

প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে, গত দুই বছর ধরে হোয়াটসঅ্যাপের প্রবৃদ্ধি হয়েছে সবথেকে বেশি ৩০ শতাংশ, ফেসবুকের প্রবৃদ্ধি ২০ শতাংশ আর মেসেঞ্জারে প্রবৃদ্ধি হয়েছে ১৫ শতাংশ। ফেসবুকের অন্য একটি অ্যাপ ইনস্টাগ্রামের প্রবৃদ্ধিও দুই বছর ধরে মোটামুটি ভালো ছিল। এটিও ৩৫ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জন করতে সক্ষম হয়েছ।

যে সকল দেশে হোয়াটসঅ্যাপ তার শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে সেগুলো হলো : ব্রাজিল, কানাডা, জার্মানি, ভারত ও যুক্তরাজ্য । তবে যুক্তরাষ্ট্র ও ফ্রান্সের বাজারে শীর্ষে আছে স্ন্যাপচ্যাট। চীন, জাপান ও দক্ষিণ কোরিয়ার বাজারে শীর্ষে রয়েছে উইচ্যাট, লাইন, কাকাওটক অ্যাপ্লিকেশনগুলো।

অ্যাপ অ্যানির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মোবাইল অ্যাপ্লিকেশনের ক্ষেত্রে ফেসবুক এখন আর সবচেয়ে জনপ্রিয় অ্যাপ নয়। মাসিক ব্যবহারকারীর হিসাব ধরলে চ্যাট অ্যাপ হোয়াটসঅ্যাপ মেসেঞ্জার ফেসবুককে টপকে গেছে। তবে ফেসবুক পিছিয়ে থাকলেও হোয়াটসঅ্যাপও কিন্তু ফেসবুকেরই মালিকানাধীন একটি কোম্পানি। ২০১৪ সালে ফেসবুক হোয়াটসঅ্যাপ সর্বস্বত্ত ক্রয় করে।
২০১৮ সালের সেপ্টেম্বর মাসে ফেসবুককে হটিয়ে শীর্ষে চলে আসে হোয়াটসঅ্যাপ। এটি প্রথমবারের মতো ফেসবুককে টপকে যাওয়ার ঘটনা ঘটিয়েছে। তথ্য ফাঁস কেলেঙ্কারি, ভুয়া খবর ছড়ানোর ব্যর্থতা এবং নির্বাচনে হস্তক্ষেপের মতো নানা বিষয়ে সমালোচনার মুখে পড়ে ফেসবুক। আর এরই ফরস্রুতিতেই জনপ্রিয়তাও হারাতে থাকে প্রতিষ্ঠানটি। এদিকে, ফেসবুকের অধীনস্থ অ্যাপগুলোর মধ্যে ২০১৭ সালের জানুয়ারি থেকে ২০১৮ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি ব্যবহারকারী বৃদ্ধি পেয়েছে ইনস্টাগ্রামের। এ ছাড়া সামাজিক যোগাযোগের অ্যাপ্লিকেশন হিসেবেও ব্যবহারকারীদের আকৃষ্ট করে চলেছে হোয়াটসঅ্যাপ। অ্যাপ অ্যানি মতে, শুধুমাত্র মাসিক ব্যবহারকারীর হিসাব ধরলেও গত বছরের সবচেয়ে বহুল ব্যবহূত অ্যাপ হচ্ছে হোয়াটসঅ্যাপ।

সকল প্রকার নিত্য নতুন খবরা খবর পেতে আমাদের পেজে লাইক দিয়ে একটিভ থাকুন

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here